Header Ads

Header ADS

রেলে ৩৫ হাজার শূন্যপদে আবেদন ১ কোটি

রেলে প্রায় ৩৫ হাজার শূন্যপদে নিয়োগের জন্য আবেদন জমা পড়েছে এক কোটিরও বেশি। কিন্তু সেই নিয়োগ পরীক্ষা কবে হবে, সেটিই এখনও নিশ্চিত নয়। আর যার জেরে রেলের এনটিপিসির (নন-টেকনিক্যাল পপুলার ক্যাটিগরিস) পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে চরম বিভ্রান্তির শিকার হয়েছেন আবেদনকারীরা। শুরু হয়েছে জোর জল্পনাও। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের (আরআরবি) ওয়েবসাইটে এই নিয়োগ প্রক্রিয়ার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে রেলমন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, চলতি বছরের জুন থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে এনটিপিসির পরীক্ষার হতে পারে। কিন্তু জুন মাস কেটে গিয়েছে। জুলাই মাসেরও দ্বিতীয় সপ্তাহ চলছে। এখনও এ নিয়ে রেল কোনও উচ্চবাচ্য না করায় ধন্দে পড়েছেন পরীক্ষার্থীরা। তাঁদের প্রশ্ন, যে নিয়োগ প্রক্রিয়ার অনলাইন আবেদনের সময়সীমা শেষ হয়ে গিয়েছে গত ৩১ মার্চ, তারপর এতদিন কেটে গেলেও বিষয়টি নিয়ে রেলের তরফে কিছু জানানো হচ্ছে না কেন? সবথেকে তাৎপর্যপূর্ণ বিষয় হল, এনটিপিসি পরীক্ষার দিনক্ষণ কবে ঘোষণা করা হবে, তা নিয়ে রেলমন্ত্রকের কাছেও সুনির্দিষ্ট কোনও তথ্য নেই। মন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে, আগস্ট মাসে এই ৩৫ হাজার শূন্যপদে নিয়োগের পরীক্ষা হতে পারে। যদিও তা এখনও নিশ্চিত নয়। যেহেতু পরীক্ষায় বসতে চেয়ে এক কোটিরও বেশি আবেদন জমা পড়েছে, তাই সেইসব আবেদনপত্র স্ক্রুটিনির কাজ চলছে। তা শেষ হলেই পরীক্ষার দিনক্ষণ জানানো হবে। এনটিপিসির এই নিয়োগ প্রক্রিয়াকে দুটো ভাগে ভাগ করে পরীক্ষা নিচ্ছে রেলমন্ত্রক। যার মধ্যে একটি রাখা হয়েছে ‘আন্ডার গ্র্যাজুয়েট’দের জন্য। যেখানে ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা হতে হবে ১০+২ পাশ। এই ক্যাটিগরিতে মোট শূন্যপদ রয়েছে ১০ হাজার ৬২৮টি। এর মধ্যে রয়েছে জুনিয়র ক্লার্ক কাম টাইপিস্ট, অ্যাকাউন্টস ক্লার্ক কাম টাইপিস্ট, জুনিয়র টাইম কিপার, ট্রেনস ক্লার্ক এবং কমার্শিয়াল কাম টিকিট ক্লার্ক। এখানে সবথেকে বেশি শূন্যপদ রয়েছে কমার্শিয়াল কাম টিকিট ক্লার্ক পদেই। ৪ হাজার ৯৪০টি। অন্যদিকে, পরীক্ষার দ্বিতীয় ভাগটি রাখা হয়েছে যাঁদের শিক্ষাগত যোগ্যতা গ্র্যাজুয়েট, তাঁদের জন্য। এক্ষেত্রে শূন্যপদের সংখ্যা মোট ২৪ হাজার ৬৪৯টি। যার মধ্যে রয়েছে ট্র্যাফিক অ্যাসিস্ট্যান্ট, গুডস গার্ড, সিনিয়র কমার্শিয়াল কাম টিকিট ক্লার্ক, সিনিয়র ক্লার্ক কাম টাইপিস্ট, জুনিয়র অ্যাকাউন্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট কাম টাইপিস্ট, সিনিয়র টাইম কিপার, কমার্শিয়াল অ্যাপ্রেন্টিস এবং স্টেশন মাস্টার। সর্বাধিক শূন্যপদ স্টেশন মাস্টার পোস্টেই। ৬ হাজার ৮৬৫টি। পদগুলির সবই নন-টেকনিক্যাল হওয়ায় প্রত্যাশিতভাবেই মোট ৩৫ হাজার ২৭৭টি শূন্যপদের জন্য এত বেশি সংখ্যক আবেদনপত্র জমা পড়েছে। কিন্তু এখনও দিনক্ষণ ঘোষণা না হওয়ায় চরম বিভ্রান্তি শুরু হয়েছে।

No comments

Powered by Blogger.